Tista Express Logo
ঢাকাবুধবার , ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
  1. Active
  2. অন্যান্য
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. করোনাভাইরাস
  9. কৃষি ও প্রকৃতি
  10. ক্যাম্পাস
  11. খেলাধুলা
  12. গণমাধ্যম
  13. জবস
  14. জাতীয়
  15. জেলা/উপজেলা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

তিনবিঘা করিডোরে রাস্তার দুপাশে দেয়াল নির্মাণ, বিজিবির বাধা

রাকিব হোসেন
সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

১৯৭৪ সালের ইন্দিরা-মুজিব চুক্তির মাধ্যমে বেরুবাড়ির বিনিময়ে তিনবিঘা করিডোর বাংলাদেশের জন্য উম্মুক্ত করে দেওয়ার কথা থাকলেও দীর্ঘ ২৩ বছর অবরুদ্ধ রেখে ১৯৭৪ এর মুল চুক্তিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ১৯৯২ সালের ২৬ শে জুন দহগ্রাম আঙ্গোরপোতা বাসির জন্য আংশিক বাস্তবায় করা হয়।

প্রথম দিকে শুধুমাত্র দিনের ৬ ঘন্টায় ১ ঘন্টা অন্তর- অন্তর দহগ্রামের মানুষ বাংলাদেশের মুল ভূখণ্ডের সাথে যাতায়াত করতে পারত, পরে ২০০৬ সালে ১২ ঘন্টা এর পর ২০১১ সালের মনমোহন সিং ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঢাকার বৈঠকে দহগ্রাম আঙ্গোরপোতা ইউনিয়ন বাসীকে ২৪ ঘন্টার জন্য বাংলাদেশের মুল ভূখণ্ডের সাথে যাতায়াতের অধিকার দেওয়া হয়েছে।

শুরু থেকে লালমনিরহাট পাটগ্রাম উপজেলাধীন বহুল-আলোচিত তিনবিঘা করিডোর দহগ্রাম ইউনিয়নকে অনেক দিক দিয়ে ভারতীয় বিএসএফ কর্তৃক হয়রানির শিকারের অভিযোগ আছে (১৭৮×৮৬ মিটার দৌর্ঘ-প্রস্তের) ভারতীয়দের কাছ থেকে ১৯৭৪ সালের ১৬ই মে নয়াদিল্লির বৈঠকে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ও তৎকালীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমান এর ৭৪ চুক্তি অনুযায়ী তিনবিঘা করিডোর এর ভীতর দিয়ে বাংলাদেশিদের চলাচলের রাস্তা থাকবে, ভারতীয়দের ওভারব্রিজের মাধ্যমে চলাচলের কথা থাকলে আজো তা বাস্তবায়ন হয় নাই। দহগ্রাম আঙ্গোরপোতা বাসির জন্য ভারতীয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রস্তে ৯ ফিট রাস্তায় বাংলাদেশের মানুষজন যাতায়াত করছে।

গত চারপাঁচ দিন থেকে ভারতীয় বিএসএফ কর্তৃক রাস্তাটি সংস্কারের কাজ চলে আসছিলো হঠাৎ ০৮ই সেপ্টেম্বর সকালে দের ফুট উচ্চতায় রাস্তার দুধারে প্রাচীর নির্মানের কাজ শুরু করলে দহগ্রাম ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনসাধারণের ক্ষোভ দেখা দেয় তাৎক্ষণিক বিষয়টি চতুর্দিকে ছড়িয়ে পরলে থমথমে পরিস্থিতি তৈরি হয় দহগ্রাম আঙ্গোরপোতায়।

পানবাড়ি ৫১ বিজিবি কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার মোঃ জাহাবুল ইসলাম বলেন, তিনবিঘা করিডোর এর ভীতরে রাস্তার দুধারে গর্ত দেখে বিএসএফ এর কাছে জানতে চেয়েছিলাম তারা বলেছে রাস্তা সংস্কার করবে,কিন্তু এখন যখন দেখছি বিএসএফ রাস্তা সংস্কারের নামে রাস্তার দুদিকে দের ফিট উচু দেওয়াল তৈরি করছে তাৎখনিক বাধা প্রদান করি এখন কাজ বন্ধ রয়েছে।

এ ব্যাপারে দহগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন প্রধান বলেন, এটা দুঃখজনক আমি দহগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি, আমরা বিজিবির সাথে আছি এখানে জনদুর্ভগ এরাতে কখন কোন কনস্ট্রাকশন করতে দেওয়া হবে না।
দহগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাফিউল আলম বাবলু বলেন,এটা দুঃখজনক রাস্তার দুধারে ওয়াল তৈরি করে বিএসএফ আমাদের চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করতে চাচ্ছে যা কখনো মেনে নেওয়া যায় না।
দহগ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান ও দহগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগে সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন ১৯৭৪ সালের ইন্দিরা-মুজিব চুক্তির মাধ্যমে বেরুবাড়ির বিনিময়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দহগ্রাম সৃষ্টি করে গেছেন, তিনবিঘা করিডোর আমাদের, ভারতীয় বিএসএফ কখনোই অন্যায় ভাবে জনদুর্ভগ বাড়ানো জন্য রাস্তার দুধারে ওয়াল তৈরি করতে পারেন না,
সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি অনুরোধ করেন তিনি, এটা যেন কখনো করা না হয়।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।